জোড় বাংলা মন্দির

 লিখেছেনঃ
  নভে. 24, 2019
  686 Views
0 0

পাবনা জোড় বাংলা মন্দির,পাবনা শহর থেকে দুই কিলোমিটার দূরে এটি অবস্থিত যা পাবনা জেলার ঐতিহাসিক নিদর্শন গুলোর অন্যতম এটি। এর মূল আকর্ষণ মন্দিরের ছাদ। পুরো মন্দিরটি জুড়ে রয়েছে নানা রকম হাতের কারুকাজ যা যেকোনো পরিদর্শককে খুব সহজেই বিমোহিত করে।

বাংলাদেশে এ ধরনের মন্দির আরো বেশ কিছু জায়গায় আছে সত্যি জোড়বাংলা মন্দির, রাজবাড়ী জোড়বাংলা মন্দির গঠন অনুসারে একই রকম। দোচালা টিনের ঘরের চালের মত ছাদ বিশিষ্ট দুটি মন্দির পাশাপাশি অবস্থিত।

স্থানীয়দের মতে জোড়বাংলা মন্দির টি ১৭৫০ খ্রিস্টাব্দের দিকে নির্মিত হয়।  অনেকের মতে মন্দির টি নির্মাণ করেন পশ্চিমবঙ্গের নবাবের কর্মচারী ব্রজমোহন ক্রোড়ী। লোকমুখে নানা তথ্য প্রচলিত হলেও মন্দিরটির আবিষ্কারের সঠিক তথ্য পাওয়া যায় না।

দুটি দোচালা সংযুক্ত করে মন্দিরের উপর ছাদ নির্মিত হয়েছে যা জোড়বাংলা নামে পরিচিত। উঁচু মঞ্চ বেদীর উপর নির্মিত মন্দিরের সামনের প্রকোষ্ঠ ৭.৩০ মিটার ×৭.৯২ মিটার এবং পশ্চাতের প্রকোষ্ঠ ৬.১২ মিটার ×২.২৮ মিটার আয়তন বিশিষ্ট। বর্তমানে মন্দির ৭.০১ মিটার উঁচু। মন্দিরের দুটি কক্ষের সামনে টির মন্ডপ এবং  পাশ্চাতটির গর্ভগৃহ হিসেবে ব্যবহৃত হতো।

মন্ডপের সম্মুখ দেয়ালে তিনটি খিলান প্রবেশপথ আছে। অনুরূপভাবে গর্ভগৃহের উত্তর দক্ষিণ দেয়ালে একটি করে এবং মন্ডপ ও গর্ভগৃহের মধ্যস্থলে আরো একটি পথ আছে। মন্দিরটির দুদিকে ৮টি করে ১৬টি স্তম্ভ রয়েছে মন্দিরের দেয়াল পোড়ামাটির চিত্রফলক দ্বারা চমৎকারভাবে অলংকৃত। বহুভুজ বিশিষ্ট খিলান দরজার উপরে রামায়ণ ও মহাভারত বর্ণিত যুদ্ধ চিত্র এবং পৌরাণিক কাহিনী চিত্রিত হয়েছে।  উপরের পাকা ছাদটি দোচালা প্রকৃতির।

অবস্থান

এটি বাংলাদেশের পাবনা জেলা শহর হতে ৩ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত।

কিভাবে যাবেন
বাস

ঢাকার কল্যাণপুর,গাবতলী, টেকনিক্যাল থেকে পাবনা যাওয়ার বাস প্রতি ঘন্টায় পাওয়া যায়।

সরকার ট্রাভেলস (টেকনিক্যাল মোবাইল-01718508727, নিউ বাস টার্মিনাল কাউন্টার পাবনা মোবাইল-01725442646)
বাস সার্ভিসের জন্য Shohoz call-16374
Busbd.com call-16460

ট্রেন

ঢাকা কমলাপুর থেকে ঈশ্বরদী
বেনাপোল এক্সপ্রেস ছাড়ে 12:40 Am   পৌঁছায় 05:10 Am  ভাড়া ৩১৫ টাকা।
বন্ধ বৃহস্পতিবার

সুন্দরবন প্রভাতী ছাড়ে 6:20 Am পৌঁছায় 11:30 Am
বন্ধ বুধবার
চিত্রা ছাড়ে 7:00 Pm পৌঁছায় 11:40 Am
বন্ধ সোমবার

ঈশ্বরদী থেকে ঢাকা কমলাপুর

বেনাপোল এক্সপ্রেস  4:35Pm পৌঁছায় 08:55 Pm

চিত্রা ছাড়ে 12:55 pm পৌঁছে 06:20 Pm

সুন্দরবন প্রভাতী 12:45 Am 05:40 Am

[ ইশ্বরদী স্টেশন ট্রেন থেকে নেমে সেখান থেকে বাস বা সিএনজি যোগে পাবনা শহর যেতে পারেন। প্রায় ৫৬ কিলোমিটার রাস্তা ১:৩০ মিনিটের মত সময় লাগে আর ভাড়া পড়বে ৬০-৭০ টাকা। পাবনা বাস স্ট্যান্ড থেকে অটো বা রিকশা তে যেতে পারেন জোড়বাংলা মন্দির,  ১০-১৫ মি. লাগে আর ভাড়া পড়বে ২০ টাকার মতো]

কোথায় থাকবেন

পাবনা শহরে  বিভিন্ন মানের হোটেল ও মোটেল রয়েছে।

সার্কিট হাউজ পাবনা ফোন-0731-65088 ডিসি রোড, পাবনা।
ইডেন বোডিং, পাবনা মোবাইল-01714423443
হোটেল টাইম গেস্ট, পাবনা মোবাইল-01711402677

[ হোটেল গুলোর ভাড়া ৩০০-৩০০০ টাকার মধ্যে পড়বে]

Article Categories:
পাবনা
banner

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।