নয় গম্বুজ মসজিদ

 লিখেছেনঃ
  জানু. 10, 2020
  898 Views
1 0

টুকিটাকি

যান্ত্রিক জীবনের একঘেয়েমি দূর করতে ও ইতিহাসের সাক্ষী হতে অতীতের হাতছানিকে আলিঙ্গন করার জন্য যারা প্রস্তুত তারা সময় করে চলে আসুন দক্ষিণবঙ্গের বাগেরহাট জেলায়। ধর্মপ্রচারক খানজাহান আলী তার সময়ে এই অঞ্চলে যে ৩৬০ টি মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য নয় গম্বুজ মসজিদ। ঐতিহাসিক মসজিদটি খানজাহান আলী মাজারের অনতিদূরে অবস্থিত।

নয় গম্বুজ মসজিদ

১৫ শতাব্দীর মাঝামাঝিতে নির্মিত বাংলাদেশের মসজিদের রাজধানী নামে পরিচিত জেলা বাগেরহাটে অবস্থিত নয় গম্বুজ মসজিদ। দক্ষিণবঙ্গের শেষ প্রান্তের বিভাগ খুলনায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে নানা ঐতিহাসিক নিদর্শন যার মধ্যে অন্যতম এই বাগেরহাটের নয় গম্বুজ মসজিদ। ইট সুরকির আস্তরণে প্রাচীন নিদর্শন যা সহজেই  মানুষকে আকৃষ্ট করে। দেশের নানা প্রান্ত থেকে মানুষ আসে এ ঐতিহাসিক মসজিদটি দেখতে।
এর পাশেই রয়েছে বাগেরহাটের ঐতিহ্যবাহী খাঞ্জেলী দীঘি। একসময় মানুষের দৈনন্দিন কাজকর্মের জন্য ব্যবহার হতো এই দিঘী কিন্তু বর্তমানে দেখভালের অভাবে এর আয়তন  ক্রমেই কমে আসছে। মসজিদটির আয়তন ১৬.৪৫ মি.× ১৬.১৫ মিটার। দেয়ালের পুরুত্ব ২.৫৯ মিটার। মসজিদের ভিতরে দুই পাশে পিলার দিয়ে ৯টি কোনা করা আছে। এই কোনা ৯ টির উপর ৯ টি গম্বুজ সদৃশ। মোট তিন সারিতে   দুটি করে নয়টি গম্বুজ আছে।

এই মসজিদের পশ্চিম দেয়ালের দিকে তিনটি মেহরাব আছে। পোড়ামাটির নকশা খচিত ও ইটের সুরকির  রঙের বৈচিত্র্য মসজিদের ভেতর ও বাহিরে চোখে পড়ার মতো। প্রধান দরজা ছাড়াও মসজিদে দুই প্রান্তে দুটি দরজা আছে। প্রতি শুক্রবার জুম্মার নামাজে এখানে কয়েক শত মুসল্লি একসাথে নামাজ পড়তে পারে। এখানে এলাকাবাসী তাদের মনোবাসনা পূর্ণ করার জন্য বিভিন্ন মানত করে থাকে। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের আওতাধীন।

অবস্থান

বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলা শহর থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে জেলা সদর উপজেলায় অবস্থিত।

কিভাবে যাবেন

ঢাকা কল্যাণপুর গাবতলী মহাখালী থেকে বাগেরহাট যাওয়ার বাস প্রতিদিনই পাওয়া যায়।

বাস

গোল্ডেন লাইন পরিবহন (কল্যাণপুর মোবাইল-01705408500, বাগেরহাট মোবাইল-01733399827)
হানিফ এন্টারপ্রাইজ কল্যাণপুর মোবাইল-01713049541
নন এসি 500 টাকা এসি 1000 টাকা ভাড়া।
অনলাইনে টিকিট বুকিং এর জন্য সহজ-16374
বাস বিডি-16460

ট্রেন

ঢাকা থেকে বাগেরহাট সরাসরি কোন ট্রেন নেই তবে ঢাকা থেকে খুলনা যেয়ে সেখান থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে বাস বা সিএনজি যোগে বাগেরহাট শহরে যেতে পারেন।

ঢাকা কমলাপুর থেকে খুলনা

সুন্দরবনে প্রভাতী ছাঁড়ে 6:20 Am পৌঁছায় 4:20 pm
বন্ধ বুধবার
চিত্রা ছাঁড়ে 7:00 pm পৌঁছায় 05:10 Am
বন্ধু সোমবার
সকল ট্রেনের ভাড়া 525 টাকা

খুলনা থেকে ঢাকা কমলাপুর

চিত্রা ছাঁড়ে 8:40 Am পৌঁছায় 06:20 pm
সুন্দরবন এক্সপ্রেস ছাঁড়ে  8:30 pm পৌঁছায়  5:40 Am

[ বাগেরহাট জেলা শহর থেকে নয় গম্বুজ মসজিদ ৪ কিলোমিটার পথ। রিক্সা বা অটো যোগে  ৩০-৩৫ টাকা ভাড়ায় নয় গম্বুজ মসজিদ দেখতে যেতে পারে]

কোথায় থাকবেন

বাগেরহাট শহরে থাকার মতো বিভিন্ন মানের হোটেল ও সার্কিট হাউজ রয়েছে।
হোটেল আল আমিন মোবাইল-01966044718
হোটেল ফুয়াদ আবাসিক মোবাইল-01715857362
হোটেল মমতাজ মোবাইল-01777758744
হোটেল অভি মোবাইল-01833742623

[ হোটেলগুলো ভাড়া  ৪০০ থেকে ৫০০০ টাকার মধ্যে পড়বে]

Article Categories:
বাগেরহাট
banner

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।