মল্লিকপুরের এশিয়ার বৃহত্তম বটগাছ

 লিখেছেনঃ
  ডিসে. 15, 2019
  733 Views
1 0

যান্ত্রিক জীবনের একঘেয়েমি দূর করতে আর প্রকৃতির সান্নিধ্য পেতে চলে আসুন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায়। এখানে রয়েছে প্রায় ৩৩ বিঘা জায়গার উপর অবস্থিত একটি বটগাছ যা এশিয়ার বৃহত্তম বটগাছ হিসেবে পরিচিত।প্রায় ৩০০ বছরের পুরনো এ বটগাছটি কারো কাছে সুইতলা বটগাছ আবার কারো কাছে মল্লিকপুরের বটগাছ আবার কারো কাছে বেথুলী বটগাছ বলে পরিচিত। ১১ একর জমির উপর জুড়ে থাকা গাছটি ৪৫ টি তে রূপ পেয়েছে। এটির উচ্চতা ২৫০-৩০০ ফুট।

১৯৮২ সালের আগ পর্যন্ত এশিয়ার বৃহত্তম গাছ বলে পরিচিত ছিল কলকাতার বোটানিক্যাল গার্ডেন এর একটি গাছ। পরে বিবিসির প্রতিবেদনে মল্লিকপুরের বটগাছ  এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম বটগাছ বলে প্রচার করা হয়। এই গাছটিকে কেন্দ্র করেই পাশে ১৩৬০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বেথুলী বা মল্লিকপুরের বাজার।

ঐতিহাসিক দিক বিবেচনা করে প্রতিদিন দেশী-বিদেশী শত শত পর্যটক এই গাছটি দেখতে আসে। এর গুরুত্ব বিবেচনা করেই ১৯৯০ সালে বটগাছের পাশেই প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ব্যয় করে একটি রেস্ট হাউস নির্মাণ করা হয়। ২০০৯ সাল থেকে সামাজিক বন বিভাগ যশোর গাছটি ব্যবস্থাপনা করে আসছে।

বটগাছের উৎপত্তি

এই গাছের উৎপত্তি সম্পর্কে সঠিক কোনো তথ্য জানা না গেলেও এলাকার বয়োবৃদ্ধদের মুখে জানা যায়, একটি কুয়ারপারে ছিল এই গাছের মূল অংশ। তখন জনবসতি ছিল খুবই কম। রাস্তার পাশে এই গাছটি ছিল ডাল কলাপাতায় পরিপূর্ণ। গাছের নিচে রোদ বৃষ্টি হতো না।

মাঘ মাসের শীতের রাতেও গাছের তলায় কদম থাকতো আর গরমকালে গাছের নিচে ঠান্ডা লাগতো। পথিকরা এই বৃহৎ বট গাছের নিচ দিয়ে যাওয়ার সময় এর নিচে শুয়ে-বসে বিশ্রাম নিত আর তখন থেকে এলাকাবাসী এই বট গাছের নাম রাখেন সুইতলা বটগাছ যা পরবর্তীতে সুইতলা বটগাছ বলেই পরিচিতি লাভ করে সবার মাঝে।

অবস্থান
এটি বাংলাদেশের খুলনা বিভাগের ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মালিঘাট  ইউনিয়নের বেথুলী মৌজায় অবস্থিত।
কিভাবে যাবেন
ঢাকার কল্যাণপুর গাবতলী ও মহাখালী হতে জিনাইদহ জেলায় সরাসরি এসি-নন এসি বাস এর ব্যবস্থা রয়েছে। এসি ১০০০ টাকা ননএসি ৪৫০ টাকা ভাড়া।
বাস
জে আর পরিবহন (কল্যাণপুর মোবাইল-01767280295, ঝিনাইদহ মোবাইল-01711168043)
পূর্বাশা পরিবহন কল্যাণপুর মোবাইল-01771028864, ঝিনাইদহ মোবাইল-01718100453)
এছাড়া হানিফ, শ্যামলী, স্কাইলাইন রয়েল বাসগুলো ঢাকা টু ঝিনাইদহ রুটে চলাচল করে।
অনলাইনে টিকিট বুকিং এর জন্য, সহজ-16374
বাস বিডি-16460
ট্রেন

ঢাকা থেকে খুলনা গামী ট্রেন সুন্দরবন প্রভাতী ঝিনাইদহ মোবারকগঞ্জ স্টেশন থামে। সেখান থেকে বাস বা সিএনজি যোগে ঝিনাইদহ শহর যেতে পারেন।৪০-৪৫ মিনিট সময় লাগে আর ভাড়া পড়বে ৩০-৩৫ টাকার মতো।

সুন্দরবন প্রভাতী ঢাকা থেকে ছাঁড়ে 6:20 Am
ভাড়া  ৪৫৫ টাকা

[ ঝিনাইদহ শহর থেকে কালীগঞ্জ উপজেলা ২০ কিলোমিটার পথ। বাস বা সিএনজি যোগে কালীগঞ্জ উপজেলা বাস স্ট্যান্ড নেমে সেখান থেকে অটো, ভ্যান যোগে ১২ কিলোমিটার দূরে মল্লিকপুরের এশিয়ার বৃহত্তম বটগাছ টি দেখতে যেতে পারেন। ঝিনাইদহ থেকে কালীগঞ্জ উপজেলায় ৪০-৪৫ মিনিটের মত সময় লাগে আর ভাড়া পড়বে ৩০-৩৫ টাকার মতো]

কোথায় থাকবেন

 ঝিনাইদহ শহরে বেশ কিছু হোটেল রয়েছে যেখানে রাত্রি যাপন করতে পারেন।

হোটেল জামান মোবাইল-01711152954
ঝিনাইদহ সার্কিট হাউজ মোবাইল-01733074606
সৃজনী রেস্ট হাউস ফোন-045162497
ব্রাক রেস্ট হাউস-0451-62880

[ মল্লিকপুরের এশিয়ার বৃহত্তম বটগাছ পাশে একটি রেস্টহাউজ রয়েছে চাইলে এখানে এক-আধবেলা বিশ্রাম নিতে পারবেন। তবে রাতে থাকার জন্য কালিগঞ্জ উপজেলা শহরের কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি রেস্টহাউজ রয়েছে। এছাড়া জেলা পরিষদ ডাকবাংলো কালীগঞ্জের মোবারকগঞ্জ সুগার মিল থাকার ব্যবস্থা রয়েছে]
[ ৩০০ থেকে  ৩ হাজার টাকার মত হোটেল গুলোর ভাড়া পরবে]
Article Categories:
ঝিনাইদহ
banner

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।