ঝাঁপা বাওড় ও ভাসমান সেতু

 লিখেছেনঃ
  জানু. 2, 2020
  1829 Views
1 0

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম উপজেলা যশোরের মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ বাজারের সঙ্গে একটি গ্রামের নাম ঝাঁপা।  ৭ বর্গকিলোমিটার আয়তন বিশিষ্ট এই গ্রামটিতে প্রায় ২৫ হাজার জনসংখ্যার বসবাস। যশোর জেলার বিখ্যাত বাওর, ঝাঁপা বাওর এই গ্রামটি ঘিরে অবস্থিত। প্রায় ৬৫০ একর জায়গা জুড়ে এ বাওর অবস্থিত।

একসময় স্থানীয়দের মনিরামপুর উপজেলায় যাওয়ার জন্য বিভিন্ন পথ অবলম্বন করতে হতো। নৌকা পার হয়ে ঝাঁপা বাওর এর অপর পার্শে  নানা কাজের জন্য যেতে হতো। গুরুত্বপূর্ণ সময়গুলোতে নৌকা পাওয়া না গেলে এলাকার মানুষের দুর্ভোগের শেষ থাকতো না। এলাকার বাসিন্দা আসাদুজ্জামান এই নিদারুণ কষ্ট অবলোকন করেন। তিনি দেখতেন নদী থেকে বালু তোলার সময় নদীর মধ্যে ট্রলারগুলো প্লাস্টিকের ড্রামের উপর বসানো থাকতো এবং অধিক ওজন সম্পন্ন এই মেশিন গুলো অনায়াসে বালু তোলে। সেখান থেকে তিনি উদ্বুদ্ধ হয়ে এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর সহযোগিতায় এই ভাসমান সেতু তৈরি করেন।

প্রায় ১৪০০ ফুট দৈর্ঘ্যের  ভাসমান সেতুটি তৈরি করতে সময় লেগেছে প্রায় কয়েক মাস।  ব্যয় হয়েছে প্রায় ৬০ লাখ টাকা। ৮৫০ টি নীল রংয়ের প্লাস্টিকের ড্রাম ব্যবহার করা হয়েছে এ সেতুটি তৈরির জন্য। এই সেতু নির্মাণের ফলে এলাকাবাসীর দূর্ভোগ বেশ লাঘব হয়েছে। সময় ও অর্থ দুটোই সাশ্রয় হয়েছে এলাকাবাসীর।

৫ টাকা দিয়ে টিকিট কেটে এই ভাসমান সেতুটিতে চড়তে পারবেন । এ ভাসমান সেতু নির্মাণের ফলে কপোতাক্ষ নদ এবং ঝাঁপা বাওড় মনিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা গ্রামের বাসিন্দাদের কষ্টের অবসান ঘটেছে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রতিদিন হাজার দর্শনার্থী কৌতূহল মেটাতে আসে এখানে। মনোরম পরিবেশের বিশালাকৃতির ঝাপা বাওর ঘুরতে ট্রলার ও নৌকা ভাড়া দেওয়ার জন্য রয়েছে  মাঝি ।

অবস্থান

এটি বাংলাদেশের খুলনা বিভাগের যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা নামক গ্রামে অবস্থিত।

ঝাঁপা বাওর ও ভাসমান সেতুর সাথে মনিরামপুর উপজেলায় অবস্থিত দমদম পীরের ঢিবি দেখে আসতে পারেন।

কিভাবে যাবেন

ঢাকার কল্যাণপুর, গাবতলী, মহাখালী, আরামবাগ, ফকিরাপুল থেকে যশোর যাওয়ার বাস প্রতিদিনই পাওয়া যায়।

বাস

দেশ ট্রাভেলস (কল্যাণপুর মোবাইল-017626844401, যশোর নিউ মার্কেট মোবাইল-0173335194-3)
হানিফ পরিবহন (কল্যাণপুর মোবাইল-01713049541, যশোর মোবাইল-01713049560)
ঈগল পরিবহন (কল্যাণপুর মোবাইল-01779492989, যশোর বেনাপোল মোবাইল-01793327969)
নন এসি ৪৫০ টাকা এসি ১০০০ টাকা ভাড়া।

অনলাইনে টিকিট বুকিং এর জন্য, সহজ-16374
বাস বিডি-16460

ট্রেন

ঢাকা কমলাপুর থেকে যশোর স্টেশন

বেনাপোল এক্সপ্রেস ছাঁড়ে  12:40 Am পৌঁছায় 07:50 Am
বন্ধ বৃহস্পতিবার

সুন্দরবন প্রভাতী ছাঁড়ে 6:20 Am পৌঁছায়  2:20 pm
বন্ধ বুধবার

চিত্রা ছাঁড়ে 7:00 pm পৌঁছায় 3:40 Am
বন্ধ সোমবার

যশোর স্টেশন থেকে ঢাকা কমলাপুর

চিত্রা ছাঁড়ে 9:51 Am পৌঁছায় 06:20 pm
বেনাপোল এক্সপ্রেস ছাঁড়ে 2:07 pm পৌঁছায় 08:55 pm
সুন্দরবন এক্সপ্রেস ছাঁড়ে  9:30 pm পৌঁছায় 5:40 Am

সকল ট্রেনের ভাড়া ৪৭৫ টাকা

[ যশোর জেলা সদর হতে মনিরামপুর উপজেলা ২৬ কিলোমিটার পথ। বাস বা সিএনজি যোগে এক ঘণ্টার মতো সময় লাগে আর ভাড়া পড়বে ৪০ টাকা। মনিরামপুর উপজেলা হতে রাজগঞ্জ বাজার সংলগ্ন ঝাপা বাওর ১০ কিলোমিটার পথ। বাস-সিএনজি বা অটো যোগে যেতে পারেন]

কোথায় থাকবেন

[ মনিরামপুর উপজেলায় থাকার মত তেমন কোনো ব্যবস্থা নেই তবে উপজেলা ডাকবাংলোতে থাকতে পারেন। সেজন্য আগে থেকে অনুমতি নিয়ে থাকতে হবে]

যশোর শহরে থাকার মতো বিভিন্ন মানের হোটেল ও সার্কিট হাউজ রয়েছে।

জাবির হোটেল ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল-01885000555
হোটেল সিটি প্লাজা ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল-01795477977
হোটেল আর এস ইন্টারন্যাশনাল  ফোন-0421-62617
হোটেল হাসান ইন্টারন্যাশনাল ফোন-0421-67478

[ হোটেল গুলোর ভাড়া ৩০০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে পড়বে]

Article Categories:
যশোর
banner

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।